1. shahalom.socio@gmail.com : admin :
  2. mshc@hotmail.co.uk : ইউকে বিডি২৪ : ইউকে বিডি২৪
  3. : :
  4. zufgvwrswv@bqocm.com : i30snk19ry cja1ten1jc : i30snk19ry cja1ten1jc
শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ০৭:৩৭ পূর্বাহ্ন
নোটিশঃ
#ঘরে_থাকুন, নিরাপদ থাকুন! নিয়মিত হাত পরিষ্কার করুন, অন্যের সংস্পর্শ এড়িয়ে চলুন, সচেতন থাকুন।

সুনামগঞ্জ-২ আসনে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী ডক্টর সামছুল হক চৌধুরী

  • আপডেট করা হয়েছে মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ২৭৪ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্ট: প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা’র স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মানে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা প্রতিষ্টার প্রত্যয়ে আগামী সংসদ নির্বাচন সুনামগঞ্জ-২, দিরাই-শাল্লা আসনের গনমানুষের আশা আশাঙ্খার প্রতীক, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং শেখ রেহানার অত্যন্ত আস্হাভাজন একজন সৎ, পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবীদ, বিশিষ্ট সমাজ-সেবক নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক কেন্দ্রীয় উপ-কমিটি সাবেক সদস্য, যুক্তরাজ্য জাতীয় শ্রমিক লীগের সংগ্রামী সভাপতি, দৌলত পুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রথম প্রস্তাকারী অবৈতনিক প্রতিষ্টাতা প্রধান শিক্ষক সাবেক ছাত্রনেতা ডক্টর সামছুল হক চৌধুরীরকে আগামী সংসদ নির্বাচনে এমপি হিসাবে দেখতে চায় দিরাই-শাল্লার আপামর জনগন।

একজন জনপ্রতিনিধি না হয়েও তিনি দিরাই-শাল্লাবাসীর মনকে জয় করেছেন তার কাজ ও সততা দিয়ে। তিনি সবসময় অন্যায়ের প্রতিবাদে আগোয়ান। বজ্র কন্ঠে তিনি প্রতিবারই অন্যায়কে রুখে দিয়েছেন। তিনি সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পরম বন্ধু হিসেবে পরিচিত। কৃষকদের সুখ দুঃখে পাশে থেকে সমস্যা সমাধান করে যাচ্ছেন।

দেশ মাটি ও মানুষের কল্যাণে নিঃস্বার্থ ভাবে সুদীর্ঘ প্রায় ৩৭ বছর যাবত কাজ করে যাচ্ছেন বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একনিষ্ট সৈনিক বঙ্গ কন্যা দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার অত্যন্ত বিশ্বস্ত কর্মী মানবতার ফেরিওয়ালা একজন পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ ডক্টর সামছুল হক চৌধুরী।

উল্লেখ্য যে, বিগত তিন টার্মে সংসদ নির্বাচনে (১৬-১১- ২০১৩), (২৪-০২-২০১৭)ইং উপ-নির্বাচনে এবং ০৯-১১-২০১৮ইং দলীয় মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করে পরবর্তীতে দলের সিদ্ধান্ত মোতাবেক আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থীর পক্ষে মাঠ পর্যায়ে কাজ করেন। গণতন্ত্রের মানসকন্যা হাসিনার শক্তিশালী করতে ভিশন ২০৪১ লক্ষ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দিরাই-শাল্লা থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী, উচ্চ শিক্ষিত, সমাজ সচেতন ও সমাজ সেবার অঙ্গনে মো. সামছুল হক চৌধুরী’র রয়েছে সরব উপস্থিতি। উপমহাদেশের বিশিষ্ট পার্লামেন্টারিয়ান, বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ, সংবিধান প্রণেতাদের অন্যতম সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য, সাবেক মন্ত্রী, দিরাই-শাল্লাবাসীর প্রিয় নেতা বাবু শ্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত এমপি’র হাত ধরে রাজনীতিতে তার পদার্পণ।

বাঙ্গালির অবিসাংবাদিত নেতা, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের লড়াকু সৈনিক হিসেবে দলীয় আর্দশের ভিত্তিতে ছাত্রজীবন থেকে অদ্যাবধি দেশে এবং প্রবাসে নিঃস্বার্থভাবে তিনি বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন করে যাচ্ছেন। মুজিবীয় আদর্শের অবিনাশী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক এই ছাত্রনেতা ১৯৮৬ খিষ্টাব্দে এম.সি কলেজে অধ্যয়নকালীন সময়ে ও পরবর্তীতে ১৯৯০ খ্রিষ্টাব্দে সৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা পালন এবং ১/১১’র দুঃসময়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার মুক্তি আন্দোলনে দেশ-বিদেশে অগ্রণী ভূমিকা তিনি পালন করেন।

ড. সামছুল হক চৌধুরী ১৯৭০ খিস্টাব্দে সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার ৭নং জগদল ইউনিয়নের নোয়াপাড়া-দৌলতপুর গ্রামে এক শিক্ষিত ও সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, শিক্ষক ও সমাজসেবক মরহুম আলহাজ¦ মাষ্টার শাহাব উদ্দিন আহমদ চৌধুরী এবং আলহাজ¦ ফাতেমা বেগম চৌধুরীর প্রথম পুত্র তিনি।

শৈশবকাল থেকেই ড. মো. সামছুল হক চৌধুরী বুদ্ধিদীপ্ত ও বিচক্ষণতার অধিকারী। ছোটবেলা থেকেই তার মধ্যে ছিল অসাধারণ গুণ, যা সবার নজর কেড়েছিল। শৈশবকাল থেকে তার চিন্তা ভাবনা ছিল আর্তমানবতা ও সাধারণ মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করা। পাড়া-প্রতিবেশী থেকে শুরু করে সকল মানুষের সমস্যা সমাধানে তিনি ছিলেন অবিচল। নিজের সর্বাত্নক চেষ্টার মাধ্যমে সর্বদা মানুষের সমস্যা সমাধানের পথ খুঁজতেন তিনি।

শিক্ষাজীবন: লেখাপড়ার প্রতি ছিল তার গভীর মনযোগ। প্রখর মেধার পরিচয় দিয়েছিলেন ১৯৮৬ সালের এসএসসি পরীক্ষায় ২টি বিষয়ে লেটার মার্কসহ সাফল্যের সাথে উত্তীর্ণ হয়ে। এরপর ১৯৮৮ সালে মুরারিচাঁদ (এম.সি) কলেজ, সিলেট থেকে এইচএসসি, ১৯৯০ সালে বিএ এবং ১৯৯৬ সালে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিষয়ে ঢাকা বিশ্বিবিদ্যালয়ের অধীনে এম.এ, এবং পরবর্তীতে গুড গভর্ন্যান্স এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ এর উপর পি এইচ ডি ডিগ্রী লাভ করেন।

রাজনৈতিক জীবন: কৈশোর থেকেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে লালন করেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে নিজেকে গড়ে তোলার স্বপ্নে বিভোর। তাই মুরারিচাঁদ কলেজে ভর্তির পরই ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় হয়ে পড়েন। সুদুর বিলেতে গিয়েও বঙ্গবন্ধুর লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন এবং রাজনীতি ও সামাজিক সংগঠনের সাথেও অতোপ্রতভাবে জড়িত। তার সততা, নিষ্ঠা ও দূরদর্শীতার কারণে লন্ডন মহানগর আওয়ামী লীগ এর কার্যকরী পরিষদের সদস্য এবং যুক্তরাজ্য জাতীয় শ্রমিকলীগের সভাপতি এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য নির্বাচিত হন।

শিক্ষা অনুরাগী ও শিক্ষাবিদ: শৈশব থেকেই শিক্ষার প্রতি ছিল অধির আগ্রহ। যার ফলশ্রুতিতে নিজ এলাকায় ১৭ বছর বয়সেই বন্ধুদের সমন্বয়ে একটি বিদ্যালয় স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহন করেন। মাত্র ৭০ টাকা মূলধন নিয়ে বিদ্যালয় স্থাপনের কাজ শুরু হয়। বর্তমানে বিদ্যালয়টি দিরাই থানার মধ্যে অন্যতম একটি আদর্শ বিদ্যালয়। এই প্রতিষ্টানটির মাধ্যমে এলাকার হাজারো শিক্ষার্থী আজ শিক্ষার আলোয় আলোকিত। শুধু বিদ্যালয়টি স্থাপন করেই থেমে যাননি তিনি বিদ্যালয়ের প্রবাসী ভবন স্থাপনে বড় ধরনের আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করেন। তাছাড়া বিদ্যালয়টি প্রথম উদোক্তা ও প্রস্তাবক অবৈতনিক প্রতিষ্ঠাতা শিক্ষক ও পরে প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক হিসেবে ও দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠত হয়।

সামাজিক অঙ্গন: সামাজিক অঙ্গনে রয়েছে তার অগ্রগণ্য ভূমিকা। সমাজকল্যাণমূলক বিভিন্ন সংগঠনের সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখে নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি জগদল ইউপি ছাত্রকল্যাণ সংঘের সভাপতি, দৈনিক সিলেট বাণী’র স্টাফ রির্পোটার হিসেবে দায়িত্ব পালল করেন। সৎ, নিষ্টাবান হওয়ার কারণে যুক্তরাজ্য দিরাই থানা ডেভেলাপমেন্ট অর্গানাইজেশনের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন এবং ঐ সময় সংগঠনের মাধ্যমে স্থানীয় দিরাই কলেজের প্রবাসী ভবনের পুনঃনির্মানের কাজ করেন। তিনি দিরাই শাল্লা কালচারেল এন্ড ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউকের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সংগঠনের পক্ষ থেকে এলাকার জনসাধারণের উন্নয়নে টিউবওয়েল স্থাপন, দরিদ্র পরিবারের জন্য বিবাহ সহায়তা এবং শীর্তাতদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ এবং হতদরিদ্রদের সাবলম্বী করতে সেলাই মেশিন প্রদান করেন। অকাল বন্যায় হাওরে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে থেকে বন্যা কবলিত মানুষের মাঝে বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে এবং ব্যক্তি উদ্যোগে বিভিন্ন ধরনের সহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন।

এছাড়াও সুনামগঞ্জ জেলা সমিতি ইউকে’র এডভাইজার, কালনী ভিউ (অনলাইন পত্রিকা), সুরমা ভিউ ২৪ ডটকম এবং নিজস্ব মালাকানাধীন ইউকে বিডি নিউজ ২৪ ডটকমের এডভাইজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ফ্রেন্ডস অব জগদল ইউনিয়ন ট্রাষ্টের এডভাইজার হিসেবেও অত্যন্ত দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। সামাজিক অঙ্গনে অবদান রাখায় বিভিন্ন সংস্থা থেকে তিনি স্বীকৃতিও পেয়েছেন। যেমন; অতীশ দীপংকর স্মৃতি ফাউন্ডেশন থেকে ‘সনদপত্র’ এবং ড. মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ স্মৃতি ফাউন্ডেশন থেকে ‘সম্মাননা পত্র’ অর্জন করেন।

ড. সামছুল হক চৌধুরীর পিতা মরহুম আলহাজ¦ শাহাব উদ্দিন চৌধুরী’র নামে পারিবারিকভাবে একটি ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট গঠন করে এলাকার বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন অব্যাহত রেখেছেন।

কোভিড-১৯ সংকটকালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আহ্ববানে সাড়া দিয়ে তিনি দিরাই-শাল্লাসহ দেশে এবং বিদেশে এমনকি মালেশিয়াতে বাংলাদেশী অনেক কর্মহীন অসহায় হতদরিদ্র গরিব কর্মহীন মানুষকে সাহায্য করেছেন।

তিনি মাননীয় পরিকল্পনামন্ত্রী মহোদয়ের মাধ্যমে স্থানীয় জগদল ইউনিয়নের হাসপাতালের ডাক্তার নার্সসহ জনবলের ব্যবস্থা করেন এমনকি বহুল প্রতিক্ষিত দিরাই শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম, দিরাই এবং শাল্লা উপজেলায় কারিগরি কলেজ স্থাপনের আবেদন করেছেন, যার কাজ চলছে। এ ছাড়াও প্রায় তিন কোটি টাকা ব্যয়ে স্থানীয় ধীতপুর থেকে পুকিডর ভায়া দৌলতপুর হয়ে কামরিবীজ পর্যন্ত দীর্ঘ প্রায় তিন কিলোমিটার রাস্তা পাকা করণের জন্য সরকার থেকে ব্যবস্থা করেছেন।

ডক্টর সামছুল চৌধুরী নিজের পকেটের টাকা দিয়ে সর্বদা দিরাই-শাল্লার অসহায় মানুষদের সেবা করে যাচ্ছেন প্রতিবারের ন্যায় এবার ও বন্যার্তদের পাশে থেকে সাহায্য সহায়তা করে যাচ্ছেন। সুনামগঞ্জ-২ দিরাই-শাল্লার জনগনের প্রতিটি দুর্যোগই পাশে থেকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে যাচ্ছেন বঙ্গঁবন্ধুর আদর্শের এই সৈনিক।

তিনি হযরত খাদিজাতুল কুবরা রা. নোয়াপাড়া-দৌলতপুর মহিলা মাদ্রাসার অন্যতম একজন দাতা ও প্রতিষ্ঠাতা। দিরাই উপজেলায় বিনামূল্যে চক্ষুসেবার জন্য প্রতিষ্ঠিত ‘বন্ধন চক্ষু হাসপাতাল’-এর অন্যতম দাতা ও প্রতিষ্ঠাতা। দেশে এবং প্রবাসে ছাত্র থাকাকালীন অবস্থায় ১৯৮৫ খ্রিষ্টাব্দ থেকে সুদীর্ঘ ৩৭ বছর যাবৎ আওয়ামী রাজনীতি ও বিভিন্ন আর্থসামাজিক সংগঠনের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। অমায়িক বন্ধুসুলভ আচরণ ও সদালাপ তার চরিত্রের অন্যতম বৈশিষ্ট্য।

তিনি ছোটবেলা থেকেই মানুষের কল্যাণে কাজ করে আসছেন এবং আগামী দিনেও এলাকাবাসী, দেশ এবং প্রবাসী বাংলাদেশী কমিউনিটির কল্যাণে কাজ করে যেতে আগ্রহী। জনগণের প্রবল আগ্রহের কারণে দিরাই-শাল্লার আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের জন্য জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় প্রতিক নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে আগ্রহী।

গণতন্ত্র ও উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ক্ষুধা, দারিদ্র, সন্ত্রাস, দুনীর্তি ও জঙ্গিবাদ, অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আজন্ম লালিত স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়নে গণতন্ত্রের মানসকন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ বির্নিমানে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সুনামগঞ্জ-২ দিরাই-শাল্লা আসনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। তিনি আপনাদের সকলের দোয়া প্রার্থী।

সিলেট/আবির

About Author

শেয়ার করুন

Facebook Comments

আরো সংবাদ পড়ুন